মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়

  নাম:

  পিত্র দত্ত দেওয়া নাম:-

প্রবোধকুমার বন্দ্যোপাধ্যায় ।

 সাহিত্যিক নাম-:

মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়।

নাম ডাকনাম:-

মানিক ।

জন্ম পরিচয়:

 জন্ম তারিখ :-

১৯মে,১৯০৮ খ্রিস্টাব্দ।

জন্মস্থান:-

দুমকা ,সাঁওতাল, পরগনা বিহার ।

 পৈত্রিক নিবাস :-

ঢাকায় বিক্রমপুর।

 পিত্র মাতৃ পরিচয়:

 পিতার নাম:

 হরিহর বন্দোপাধ্যায় ।

পেশা:

 অ্যাসিস্ট্যান্ট অফিসার ,সেটেলমেন্ট বিভাগ, ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট।

 মাতার নাম:

 নিরদাসুন্দরী দেবী ।

 শিক্ষাজীবন :

মাধ্যমিক:

 মেট্রিক(১৯২৬), মেহেদিপুর জেলায় স্কুল ।

উচ্চ মাধ্যমিক:

 আই এস সি ,(১৯২৬), ওয়েসলিয়ি মিশন কলেজ, বাঁকুড়া।

 বিএসসি-গণিত:

 কলকাতা প্রেসিডেন্সি কলেজ (অসমাপ্ত)।

কর্মজীবন :

সহ সম্পাদক:

 বঙ্গশ্রী পত্রিকা ।

পাবলিসিটি এসিস্ট্যান্ট :

ন্যাশনাল  ওয়ার ফন্টের প্রভিন্সিয়ালঅর্গানাইজার দপ্তর।

যুগ্ম সম্পাদক: 

 প্রগতি লেখক সংঘ ।

সাহিত্যকর্ম:

 প্রথম গল্প:

 ”অতিশিমামী”(১৯৩৫) ।

উপন্যাস:

 ”জননী”(১৯৩৫),” দিবারাত্রির কাব্য”(১৯৩৫),” পুতুলনাচের ইতিকথা”(১৯৩৬), ”পদ্মা নদীর মাঝি”(১৯৩৬) ”,শহরতলি”(১৯৪০) ,”অহিংসা”(১৯৪১)”, সোনার চেয়ে দামি”(১৯৫১),” স্বাধীনতার স্বাদ”(১৯৫১)”, ইতিকথার পরের কথা”(১৯৫২), ”আরোগ্য”(১৯৫৩),”হরফ”(১৯৫৪) ”হলুদ নদী সবুজ বন ”(১৯৫৬)।

গল্পগ্রন্থ:

” অতিশিমামী ও অন্যান্য গল্প”(১৯৩৫), ”প্রাগৈতিহাসিক ”(১৯৩৭),”মিহি ও মোটা কাহিনী”(১৯৩৮) ”সরীসৃপ”(১৯৩৯), ”কুষ্ঠরোগীর বউ ”(১৯৪৩),”টিকটিকি”,” সমুদ্রের স্বাদ”(১৯৪৩),” হলুদ পোড়া;” আজ কাল পরশুর গল্প ”(১৯৪৬),”হারানের নাতজামাই”,” মাটির মাশুল”,” ছোট গল্প ”,(১৯৪৮) ”ছোট বকুলপুরের যাত্রী” (১৯৪৯),”ফেরিওয়ালা”(১৯৫৩,) ”উত্তরকালে গল্প সংগ্রহ”, “ শ্রেষ্ঠ গল্প ”(১৯৫০)। 

 প্রবন্ধ গ্রন্থ :

 লেখকের কথা  ।

 জীবনাবসান:

 মৃত্যু তারিখ:

৩ ডিসেম্বর ১৯৫৬ খ্রিস্টাব্দ ,কলকাতা।

Post Author: showrob

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

+ 87 = 97